বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে মুখের কোণে ভেসে উঠে বলিরেখা। ফেসিয়াল করে মহিলারা তা ঢাকার চেষ্টা করেন। এছাড়া নানা চিকিত্সা রয়েছে যাতে এই বলিরেখা দূর করা যায়। তবে বাড়িতে কিছু ভেষজ জিনিস প্রয়োগ করে আপনি সহজেই এর হাত থেকে মুক্তি পেতে পারেন। চলুন সেই সহজ পদ্ধতিটা জেনে নিই।

* আলু ঘষে মুখে লাগান।
* রান্না করতে করতে হাতের কাছে টমেটোর টুকরো থাকলে তা মুখে লাগিয়ে ফেলুন। টমেটো ত্বকের জন্য উপকারী।
* শসার রসের মধ্যে অলিভওয়েল মিশিয়ে মুখে লাগান।
* কলা চটকে মুখে লাগানোও ভীষণ ভালো। এতে আপনার বলিরেখা সহজেই দূর হয়ে যাবে।
* গাজরের রসের মধ্যে পেস্তাবাদাম এবং কাঁচা দুধ মিশিয়ে মুখে লাগান। এতেও ফল পাবেন।
* প্রতিদিন মুখে বাদাম তেল লাগান।

ত্বকের প্রকৃতি জানুন টিসু পেপার দিয়ে
ত্বকের যত্নের আগে ত্বকের প্রকৃতিটা জানা জরুরি। সাধারণত ত্বক হলো পাঁচ রকমের। সাধারণ ত্বক (নর্মাল স্কিন), তৈলাক্ত ত্বক (ওয়েলি স্কিন), রুক্ষ ত্বক (ড্রাই স্কিন), মিশ্র ত্বক (কম্বিনেশন স্কিন), সংবেদনশীল ত্বক (সেনসেটিভ ত্বক)। যদি আপনার ত্বকের প্রকৃতিটা জানা থাকে তাহলে ত্বক সংক্রান্ত যে কোনো সমস্যারই খুব তাড়াতাড়ি সমাধান করতে পারবেন।

কিন্তু কী করে জানবেন আপনার ত্বকের প্রকৃতি? এজন্য টিস্যু পেপার দিয়ে অনায়াসেই আপনার ত্বকটা কী ধরনের তা জানতে পারবেন।
– সকালে উঠে আলাদা আলাদা টিসু পেপার দিয়ে মাথা, গলা, নাক হালকা করে মুছুন। কিন্তু রগড়াবেন না। যদি সব টিসু পেপারেই তেল লেগে যায় তাহলে বুঝবেন আপনার ত্বক তৈলাক্ত।
– যদি নাক, থুতনি আর মাথায় তেল লাগে এবং গলাতে যে টিসুটা ব্যবহার করেছিলেন তাতে যদি তেল না লাগে তাহলে বুঝবেন আপনার ত্বক মিশ্র।
– যদি টিসু পেপারে কোনো তেল না লাগে তাহলে বুঝবেন আপনার ত্বক নর্মাল।
– যদি অল্পতেই মুখে টান ধরে তবে বুঝবেন আপনার ত্বক ড্রাই অর্থাত্ রুক্ষ।

এড়িয়ে চলুন হাইহিলের জুতা
সৌন্দর্য বাড়ানোর জন্য বর্তমানে বেশিরভাগ মহিলাই হাই হিলের জুতা পরে থাকেন। উচ্চতা বাড়ানোর সঙ্গে তা ইদানীং ফ্যাশনেও নতুন মাত্রা যোগ করেছে। কিন্তু জানেন কি, দীর্ঘদিন এই হাই হিলের জুতা পরার ফলে আপনি কঠিন রোগের শিকার হতে পারেন। আপনার শরীরে তৈরি হতে পারে নানা ধরনের সমস্যা। ক্রমাগত হাই হিলের জুতা পরলে পুরো শরীরে এর নেগেটিভ প্রভাব পড়ে। এতে জয়েন্টের ওপর চাপ পড়ে। কারণ হাই হিল পরলে শরীরের সারা ভারটা পায়ের পাতার ওপরে চলে আসে।

এজন্য বেশিরভাগ ক্ষেত্রে পায়ের পাতার ওপর প্রচণ্ড ব্যথা হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। এছাড়া হাঁটুতেও যন্ত্রণা হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। গবেষণায় দেখা গেছে, হাই হিল পরার ফলে হাঁটুর ওপরে পুরো শরীরের ওজনের ২৬ শতাংশ চাপ পড়ে। এছাড়া একনাগাড়ে হাই হিল পরলে আপনি ব্যাক পেইনের শিকার হতে পারেন। ব্যাক পেইন আবার কখনও কখনও আর্থারাইটিসের সমস্যাও তৈরি করতে পারে। তাই বেশিরভাগ চিকিত্সকই ফ্ল্যাট জুতা পরার পরামর্শ দিয়ে থাকেন।